1. rajoirnews@gmail.com : ABDUL AZIZ : ABDUL AZIZ
  2. gopalganjbarta@gmail.com : ashik Rahman : ashik Rahman
  3. news.coxsbazarvoice@gmail.com : ABDUL AZIZ : ABDUL AZIZ
  4. jmitsolutionbd@gmail.com : jmmasud :
পিএমখালীতে মেম্বার প্রার্থীর আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ - Coxsbazar Voice
সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১২:১১ পূর্বাহ্ন
দৃষ্টি দিন:
সম্মানিত পাঠক, আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছি। প্রতিমুহূর্তের সংবাদ জানতে ভিজিট করুন -www.coxsbazarvoice.com, আর নতুন নতুন ভিডিও পেতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল Cox's Bazar Voice. ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে শেয়ার করুন এবং কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ।

পিএমখালীতে মেম্বার প্রার্থীর আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ

  • প্রকাশিত : রবিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২১, ১১.৪৯ পিএম
  • ৭৩ জন সংবাদটি পড়েছেন।

বার্তা পরিবেশক:

কক্সবাজার সদর উপজেলার পিএমখালী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার (সদস্য) প্রার্থী তাজ উদ্দিন সিকদার তাজমহলের বিপক্ষে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলেছেন অন্য প্রার্থীরা।রবিবার দুপুরে সদর নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানিং অফিসার বরাবর মেম্বার পদপ্রার্থী মিজানুর রহমান একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

মিজানুর রহমান তার লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে শুক্রবার, শনিবার রাতে সম্ভাব্য মেম্বার প্রার্থী বর্তমান ওয়ার্ড মেম্বার তাজমহল স্থানীয় ভোটার এলাকার টার্গেট করে সশস্ত্র দলবল নিয়ে একদিন একএক মসজিদে নামাজের সময় গিয়ে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে রেখে ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক ডাহা মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে যাচ্ছে। সাধারণ মানুষকে মসজিদের ভিতরে জোর করে আটকিয়ে রেখে আগামী ১১ নভেম্বর নির্বাচনের দিন তাকে সবাই যেন ভোট প্রদান করেন সে লক্ষ্যে তাদের কাছ থেকে মৌখিক প্রতিশ্রুতি আদায় করেন, পক্ষে সবাইকে কৌশলে শপথ বাক্য পাঠ করান।

তাহের মোহাম্মদ ঘোনা এলাকার স্থানীয় এক ব্যক্তি (নাম প্রকাশ না করার শর্তে) জানান, একটি সম্ভাব্য নির্বাচনী ভোটার এলাকায় একাধিক প্রার্থী থাকা সত্ত্বেও একজন বিতর্কিত প্রার্থী এভাবে অনধিকার চর্চা করলে অন্যান্য প্রার্থীরা কোণঠাসা হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেবে। যেকোন সময় আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে। এই অবস্থা চলতে থাকলে এলাকার মানুষ অদূর ভবিষ্যতে তাদের জনপ্রিয় যোগ্য নেতা নির্বাচন করতে উৎসাহ হারিয়ে ফেলবে। আবার ভবিষ্যৎ প্রজন্মের ওপর দারুণ প্রভাব পড়বে বলেও মন্তব্য করেন সে।

একটি সূত্র জানিয়েছে, এলাকার সহজ-সরল সাধারণ মানুষ বিতর্কিত এক প্রার্থীর চাপের মুখে পড়ে শপথ বাক্য পাঠ করার কারণে ভোটের দিন দ্বিধাদ্বন্দ্বে পড়তে পারেন সাধারণ মানুষ।এই অবস্থায় ভোটারেরা নানা শঙ্কায় রয়েছেন। অভিযুক্ত প্রার্থী উক্ত এলাকার মানুষের ওপর প্রতিনিয়ত জোর জুলুম অব্যাহত রেখেছেন। এবং ভয়-ভীতি প্রদর্শন পূর্বক একযুগের অধিক সময় ধরে প্রভাব বিস্তার করে ওয়ার্ড মেম্বার এর ক্ষমতা কুক্ষিগত (অপব্যবহার) করে এলাকার প্রতিবাদী মানুষকে মিথ্যা মামলা সহ দমন নিপীড়ন করে যাচ্ছেন। তার এমন ন্যক্কারজনক কাজের প্রতিবাদ করায় গত শুক্রবার, শনিবার স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয়।

জানা যায়, মানুষ এখন পরিবর্তনে বিশ্বাসী আর নেতৃত্বের গুণাবলী সম্পন্ন একজন জনপ্রিয় মানুষের হাতে সমাজ বা ওয়ার্ডের দায়িত্ব তুলে দেওয়ার জন্য সাধারণ মানুষ মুখিয়ে আছেন। তাই এলাকার অতিউৎসাহী মানুষের ইচ্ছাপূরণ সহ দরিদ্র অসহায় মানুষের ন্যায্য অধিকার আদায় করত: তাদের হক দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে শপথ বাক্য পাঠ করে দেশ, সমাজ, সাধারণ মানুষের স্বার্থে লিখিত অভিযোগ পত্রে স্বাক্ষর করেছেন সম্ভাব্য মেম্বার প্রার্থী মিজানুর রহমান। সে পিএমখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৩ নং ওয়ার্ডের লেবেল প্লেয়িং ফিল্ড বজায় রাখতে তাজমহল কে নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের কারণে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে আহ্বান জানান।

এ প্রসঙ্গে অভিযোগকারী মিজানুর রহমান বলেন, নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী কোনো প্রার্থী ভোটারদের কে শপথ বাক্য পাঠ করার মতো গর্হিত কাজ এবং নির্বাচনী এলাকায় সাধারণ ভোটারদের ওপর প্রভাব বিস্তার, সরকারি উন্নয়ণমূলক কর্মসূচিতে কর্তৃত্ব করতে পারবেন না বা সভায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। এমন নির্দেশনা থাকলেও মেম্বার তাজমহল নির্বাচন কমিশনের এসব বিধিনিষেধ মানছেন না। এ ব্যাপারে তার সঙ্গে আমিসহ অন্য মেম্বার প্রার্থীদের একাধিকবার বাকবিতণ্ডা হলেও তিনি সরে আসেননি। তাই বাধ্য হয়ে আমরা উপজেলা রিটানিং অফিসার সহ সরকারি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দপ্তর প্রধানদের বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছি।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে মেম্বার তাজমহলের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে ফোনে সংযোগ না পাওয়ার কারণে তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শিমুল শর্মা বলেন, ৩ নং ওয়ার্ড মেম্বার তাজমহল নির্বাচন আচরণবিধি লংঘন করেছে মর্মে একটি লিখিত অভিযোগ তিনি পেয়েছেন। বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করে অভিযুক্তকে মৌখিকভাবে সতর্ক করে দিয়েছেন। আজকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের নমিনেশন পেপার দাখিলের শেষদিন হওয়ার কারণে অফিসের কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়েছে। ২/১ দিনের মধ্যে সরেজমিন তদন্ত করে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান।

ভয়েস/আআ

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020
Design & Developed by : JM IT SOLUTION